জীবন গল্পফিচার

স্কুল লাইফ থেকেই টুকটাক লেখালেখি করতাম-ফারজানা আক্তার

লিখেছেন মোঃ হাসান

পুরো পৃথিবীটাই যেন একটি গল্প। সুখ, দুঃখ, কান্না হাসি, মেঘ বৃষ্টি, রোদ, বাতাস, শীতল, গরম, আলো, অন্ধকার। সব কিছুই একেক রকমের গল্প । সব গল্পে রয়েছে কান্না, হাসি। রয়েছে শেষ সীমানা। কিন্তু লেখকের কোনো সীমানা থাকেনা। প্রাচীর পেড়িয়ে প্রাচীর, সাগর পাড়ি দিয়ে সাগর। যত দূরে চোখ যায় তত দূরে লিখে যায় লেখক। তেমনই একজন লেখিকা হলেন ফারজানা আক্তার। তিনিই যেন একটা গল্পের হাঁড়ি। ছোটো বেলা থেকেই লিখে আসছিল। লিখতো নিজের ডাইরিতে আলতো ছুঁয়ে। বেশি না দুয়েক লাইন করে। কিন্তু এর মাঝেই ঘটে গেলো এক অদ্ভুত কান্ড। ফেসবুকে এক ভাই থেকে অনুপ্রেরণা পেয়ে লেখালেখি আরো বেড়ে গেলো। কিন্তু তার সাথে আগায়নি তার পরিচয় বেশিদিন। হাড়িয়ে গেছে সেই ভাইটি। বেশ কিছুদিন অনলাইন থেকে দূরে থাকার কারনে।

 

 

ফারজানা আক্তার কোনো কারন নিয়ে লেখালেখি করছেন না। নিজের ভালো লাগা থেকে লিখে। ভালো না লাগলে দূরেই থাকে পরিচিত কলম কাগজ থেকে। ফারজানা আক্তার রানিং গল্প সহ তার আরো “প্রথম প্রেমের উষ্ণতা”
“জান্নাত”
“শুকনো পাতার বৃষ্টি”
“ফুল ফুটেনি এই বসন্তে”
“মধুবালা” নামে কয়েকটি গল্প লেখা হয়েছে। যা পাঠকের মধ্যে সারা ফেলছে। গল্পের মতো তারও স্বপ্ন রয়েছে। রয়েছে তার স্বপ্নের গল্প। একক ভাবে নিজের বই লেখা। যদিও যৌথ ভাবে বই বের হয়েছে ফারজানা আক্তারের। আরো বের হবে কাজ চলছে।

Related Articles

Back to top button